• Usulud Deen Cover 2

নারীদের সম-সাময়িক বিভিন্ন সমস্যা এবং তা থেকে উত্তরণের ক্বোরআন-ছুন্নাহ ভিত্তিক পথ ও পদ্ধতি (৩৯নং পর্ব)

উছতায আবূ ছা`আদাহ হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله ধারাবাহিক এই অডিও বক্তব্যে নারীদের সম-সাময়িক বিভিন্ন সমস্যা এবং এসকল সমস্যা থেকে উত্তোরণের পথ ও পদ্ধতি বিষয়ে ক্বোরআন-ছুন্নাহ্‌র আলোকে অত্যন্ত মূল্যবান আলোচনা পেশ করেছেন। পারিবারিক এবং বৈবাহিক জীবনে নারীরা বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হওয়া, সন্তানদের লালন-পালন করা, সুখী ও সমৃদ্ধ পরিবার গড়ে তোলা, ঘরের বাইরে কাজ-কর্ম করা ইত্যাদি অনেকগুলো বিষয় সম্পর্কে এখানে আলোচনা করা হয়েছে। এই পর্বে উছতায হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله ‘কনে কিভাবে দেখতে হবে এবং কনের সাথে কথা বলা যাবে কি-না’ এই বিষয়ে আলোচনা করেছেন, তন্মধ্যে অতি গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি বিষয় নিম্নে উল্লেখ করা হলো:-
১) রাছূলুল্লাহ صلى الله عليه وسلم বলেছেন- যখন কোনও পুরুষের মনে কোনো নারীকে বিয়ে করার ইচ্ছা হবে, তখন সে চাইলে তাকে দেখতে পারে। ((ইবনে মাজাহ)) অপর আরেকটি হাদিছে এসেছে, রাছূলুল্লাহ صلى الله عليه وسلم বলেছেন, কেউ যখন কোনে নারীকে বিয়ের প্রস্তাব দেবে, তখন সম্ভব হলে সে যেন ওই নারীকে দেখে নেয়। ছূরা আহ্‌যাবের ৫২ নং

নারীদের সম-সাময়িক বিভিন্ন সমস্যা এবং তা থেকে উত্তরণের ক্বোরআন-ছুন্নাহ ভিত্তিক পথ ও পদ্ধতি (৩০নং পর্ব)

উছতায আবূ ছা`আদাহ হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله ধারাবাহিক এই অডিও বক্তব্যে নারীদের সম-সাময়িক বিভিন্ন সমস্যা এবং এসকল সমস্যা থেকে উত্তোরণের পথ ও পদ্ধতি বিষয়ে ক্বোরআন-ছুন্নাহ্‌র আলোকে অত্যন্ত মূল্যবান আলোচনা পেশ করেছেন।পারিবারিক এবং বৈবাহিক জীবনে নারীরা বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হওয়া, সন্তানদের লালন-পালন করা, সুখী ও সমৃদ্ধ পরিবার গড়ে তোলা, ঘরের বাইরে কাজ-কর্ম করা ইত্যাদি অনেকগুলো বিষয় সম্পর্কে এখানে আলোচনা করা হয়েছে।
এই পর্বে উছতায হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله বিয়ের বয়স নির্ধারণ’ নিয়ে আলোচনা করেন, তন্মধ্যে অতি গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি বিষয় নিম্নে উল্লেখ করা হলো:-
১) ‘ইবাদাতের সাথে সম্পর্কিত সকল কিছুই ‘ইবাদাহ হিসেবে গণ্য হয়। তেমনি বিয়ের সাথে সম্পর্কিত সকল কিছুই ‘ইবাদাহ। যেমনঃ উত্তম বর ও কনে তালাশ করা, কনে দেখা, কখন বিয়ে করবেন, কয়টা বিয়ে করবেন এসবই মূলতঃ ‘ইবাদাহ এর অন্তর্ভুক্ত। তাই, যে বিষয়গুলো ‘ইবাদাহ হিসেবে গণ্য হয়, সেখানে মানুষের জ্ঞান-বুদ্ধি বা যুক্তি প্রয়োগের

আল ইমাম মুহাম্মাদ ইবনু সালিহ্‌ আল ‘উছাইমীন কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত আল ইমাম ইবনু ক্বোদামাহ আল মাক্বদিছী রচিত -‘আক্বীদাহ সংকলন- গ্রন্থ (৪৬নং পর্ব)

এই অডিওটি আশ্‌শাইখ মুহাম্মাদ ইবনু সালিহ্ আল ‘উছাইমীন رحمه الله কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত ইমাম ইবনু ক্বোদামাহ আল মাক্বদিছী رحمه الله এর সুপ্রসিদ্ধ গ্রন্থ “লুম‘আতুল ই‘তিক্বাদ”এর ধারাবাহিক অডিও ভাষান্তর। বাংলা ভাষায় অডিওরূপে এটি ভাষান্তর করেছেন উছ্‌তায আবূ ছা‘আদা হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله। এতে ছালাফে সালিহীনের (رضي الله عنهم) আক্বীদাহ-বিশ্বাসের বিবরণ তুলে ধরা হয়েছে। আহলুছ্ ছুন্নাহ ওয়াল জামা‘আতের ‘উলামায়ে কিরামের চিরাচরিত স্বভাব–বৈশিষ্ট্যও হলো যে, তারা তাদের লিখনীর মাধ্যমে সর্বাগ্রে বিশুদ্ধ ইছলামী ‘আক্বীদাহ সংরক্ষণ এবং তা প্রচার ও প্রসার করে থাকেন। বক্তব্যের এ পর্বে উছতায হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله সিঙ্গায় ফুঁৎকার দেওয়ার বিষয় সম্পর্কে আলোচনা করেছেন। আলোচনার সারসংক্ষেপ নিম্নরূপঃ
১) ইমাম ইবনু ক্বোদামাহ رحمه الله বলেছেন, মৃত্যুর পরে পুনরুথানের বিষয়টি সত্য। এটি তখনই ঘটবে যখন ইছরাফিল—– সিঙ্গায় ফুঁৎকার দেবেন। ছূরা ইয়াছীনের ৫১ নং আয়াতে আল্লাহ سبحانه وتعالى বলেন-

وَنُفِخَ فِى ٱلصُّورِ فَإِذَا هُم مِّنَ ٱلْأَجْدَاثِ إِلَىٰ رَبِّهِمْ يَنسِلُونَ

(সম্পূর্ণ অডিও সেট) আশ্‌শাইখ সালিহ্‌ আল ফাওযান-“ছালাফে সালিহীনের মানহাজ এবং উম্মাতের জন্য এর প্রয়োজনীয়তা”

“ছালাফে সালিহীনের মানহাজ এবং উম্মাতের জন্য এর প্রয়োজনীয়তা” শীর্ষক আশ্‌শাইখ সালিহ্‌ আল ফাওযান حفظه الله কর্তৃক প্রদত্ত বক্তৃতার ভাষান্তর হলো এই অডিও। শাইখ সালিহ্‌ আল ফাওযান حفظه الله তাঁর এই ভাষণে ছালাফে সালিহীনের অনুসৃত নীতি-পন্থার যথার্থতা এবং উম্মাতের জন্য এর প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি ক্বোরআন ও ছুন্নাহ্‌র দালীল-প্রমাণ দিয়ে সন্দেহাতীত ভাবে প্রমাণিত করেছেন। 

নারীদের সম-সাময়িক বিভিন্ন সমস্যা এবং তা থেকে উত্তোরণের ক্বোরআন-ছুন্নাহ ভিত্তিক পথ ও পদ্ধতি (৩৮তম পর্ব)

আবূ ছা`আদাহ হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله ধারাবাহিক এই অডিও বক্তব্যে নারীদের সম-সাময়িক বিভিন্ন সমস্যা এবং এসকল সমস্যা থেকে উত্তোরণের পথ ও পদ্ধতি বিষয়ে ক্বোরআন-ছুন্নাহ্‌র আলোকে অত্যন্ত মূল্যবান আলোচনা পেশ করেছেন। পারিবারিক এবং বৈবাহিক জীবনে নারীরা বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হওয়া, সন্তানদের লালন-পালন করা, সুখী ও সমৃদ্ধ পরিবার গড়ে তোলা, ঘরের বাইরে কাজ-কর্ম করা ইত্যাদি অনেকগুলো বিষয় সম্পর্কে এখানে আলোচনা করা হয়েছে। এই পর্বে উছতায হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله ‘বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ার ও কনে দেখার ছুন্নাহ সম্মত উপায়’ নিয়ে আলোচনা করেন, তন্মধ্যে অতি গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি বিষয় নিম্নে উল্লেখ করা হলো:-
১) বিয়ের প্রস্তাব পেশ করাকে বিয়েতে প্রবেশের দরজার সাথে তুলনা করা হয়েছে। বিয়ের প্রস্তাব হঠাৎ করে দেওয়া যায় না। এর পূর্বে কিছু কাজ রয়েছে। এই কাজগুলো করলেই তবে প্রস্তাবটি ফলপ্রসূ ও অর্থবহ হবে। সেগুলো হলো-

ক) আগেই সেই ছেলে বা মেয়ে সম্পর্কে খোঁজখবর নিতে হবে।

আল ইমাম মুহাম্মাদ ইবনু সালিহ্‌ আল ‘উছাইমীন কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত আল ইমাম ইবনু ক্বোদামাহ আল মাক্বদিছী রচিত -‘আক্বীদাহ সংকলন- গ্রন্থ (৪৫নং পর্ব)

এই অডিওটি আশ্‌শাইখ মুহাম্মাদ ইবনু সালিহ্ আল ‘উছাইমীন رحمه الله কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত ইমাম ইবনু ক্বোদামাহ আল মাক্বদিছী رحمه الله এর সুপ্রসিদ্ধ গ্রন্থ “লুম‘আতুল ই‘তিক্বাদ”এর ধারাবাহিক অডিও ভাষান্তর। বাংলা ভাষায় অডিওরূপে এটি ভাষান্তর করেছেন উছ্‌তায আবূ ছা‘আদা হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله। এতে ছালাফে সালিহীনের (رضي الله عنهم) আক্বীদাহ-বিশ্বাসের বিবরণ তুলে ধরা হয়েছে। আহলুছ্ ছুন্নাহ ওয়াল জামা‘আতের ‘উলামায়ে কিরামের চিরাচরিত স্বভাব–বৈশিষ্ট্যও হলো যে, তারা তাদের লিখনীর মাধ্যমে সর্বাগ্রে বিশুদ্ধ ইছলামী ‘আক্বীদাহ সংরক্ষণ এবং তা প্রচার ও প্রসার করে থাকেন। বক্তব্যের এ পর্বে উছতায হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله ক্বিয়ামাতের অন্যতম ‘আলামত- পশ্চিম দিক থেকে সূর্য উদিত হওয়া সম্পর্কে এবং ক্বাবারের আযাব সম্পর্কে আলোচনা করেছেন। আলোচনার সারসংক্ষেপ নিম্নরূপ:-
১) ক্বিয়ামাতের অন্যতম ‘আলামত- পশ্চিম দিক থেকে সূর্য উদিত হওয়া। ইমাম ইবনু ক্বোদামাহ رحمه الله এর একথার ব্যাখ্যায় শাইখ ‘উছাইমীন رحمه الله বলেছেন যে, এ বিষয়টি ক্বোরআন ও ছুন্নাহ দ্বারা প্রমাণিত।

ক) ক্বোরআনে কারীম থেকে এর প্রমাণ হলো-

ড. আশ্‌ শাইখ সালিহ্‌ আল ফাওযান কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত ইমাম আল বারবাহারী রচিত “শারহুছ্ ছুন্নাহ (ছুন্নাতের ব্যাখ্যা)” (৪৬নং পর্ব)

এটি মুহ্‌তারাম আশ্‌শাইখ সালিহ্ আল ফাওযান (حفظه الله) কর্তৃক আহলে ছুন্নাত ওয়াল জামা‘আতের প্রখ্যাত ইমাম- ইমাম আল বারবাহারী (رحمه الله) এর অনবদ্য গ্রন্থ “শারহুছ্ ছুন্নাহ”এর অতি চমৎকার ও মূল্যবান ব্যাখ্যাগ্রন্থের অডিও ভাষান্তর। বাংলা ভাষায় গ্রন্থটি ধারাবাহিকভাবে অডিও ভাষান্তর করছেন উছতায আবূ ছা`আদা হাম্মাদ বিল্লাহ (حفظه الله)। অদ্যকার আলোচনায় উছতায- হাউযে কাউছারের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন ও এর বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে মূল্যবান আলোচনা করেছেন। এছাড়াও তাতে নিম্নোক্ত বিষয়াদী সম্পর্কে অত্যন্ত চমৎকার আলোচনা করা হয়েছে:-
১) ইমাম বারবাহারীرحمه الله বলেছেন, দ্বীনের অন্যতম বিষয় হল, হাউযে কাউছারের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন। এবং প্রত্যেক নাবীরই আলাদা হাউয থাকবে। সালিহ عليه السلام এর ক্ষেত্রে তার উটনীর ওলানই হবে তার হাউয।
এর ব্যাখ্যায় শাইখ ফাউযান حفظه الله বলেন, ক্বিয়ামাতের দিন মানুষের প্রচণ্ড পিপাসা পাবে। তারা তাদের নিজ নিজ নাবীর হাউযে অবতরণ করবে। হাউযের বৈশিষ্ট্যসমূহ নিম্নরুপ:-

ক) রাছূলুল্লাহ صلى الله عليه وسلم এর হাউয হবে সবচেয়ে বড়। হাউযের দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ হবে এক মাসের চলার পথ। এটি বর্গাকার

Subscribe to our mailing list

* indicates required
Close