• Usulud Deen Cover 2

আল ইমাম মুহাম্মাদ ইবনু সালিহ্‌ আল ‘উছাইমীন কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত আল ইমাম ইবনু ক্বোদামাহ আল মাক্বদিছী রচিত -‘আক্বীদাহ সংকলন- গ্রন্থ (৪৮নং পর্ব)

এই অডিওটি আশ্‌শাইখ মুহাম্মাদ ইবনু সালিহ্ আল ‘উছাইমীন رحمه الله কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত ইমাম ইবনু ক্বোদামাহ আল মাক্বদিছী رحمه الله এর সুপ্রসিদ্ধ গ্রন্থ “লুম‘আতুল ই‘তিক্বাদ”এর ধারাবাহিক অডিও ভাষান্তর। বাংলা ভাষায় অডিওরূপে এটি ভাষান্তর করেছেন উছ্‌তায আবূ ছা‘আদা হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله। এতে ছালাফে সালিহীনের (رضي الله عنهم) আক্বীদাহ-বিশ্বাসের বিবরণ তুলে ধরা হয়েছে। আহলুছ্ ছুন্নাহ ওয়াল জামা‘আতের ‘উলামায়ে কিরামের চিরাচরিত স্বভাব–বৈশিষ্ট্যও হলো যে, তারা তাদের লিখনীর মাধ্যমে সর্বাগ্রে বিশুদ্ধ ইছলামী ‘আক্বীদাহ সংরক্ষণ এবং তা প্রচার ও প্রসার করে থাকেন। বক্তব্যের এ পর্বে উছতায হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله শাফা‘য়াত সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। আলোচনার সারসংক্ষেপ নিম্নরূপঃ
১) ইবনু ক্বোদামাহ رحمه الله বলেন, আমাদের নাবী صلى الله عليه وسلم তার উম্মাতের সেই সমস্ত লোকদের ব্যাপারে সুপারিশ করবেন, যারা কাবীরাহ গুনাহের কারণে জাহান্নামে নিপতিত হয়েছে। তারা সেখানে জ্বলে পুড়ে কয়লা ও অঙ্গার হয়ে থাকবে। পরবর্তীতে রাছূলুল্লাহ্‌র (صلى الله عليه وسلم) সুপারিশে তারা জাহান্নাম থেকে বের হয়ে আসবে এবং জান্নাতে প্রবেশ করবে।
অন্যান্য সকল নাবী, মূমীন ব্যক্তি এবং মালাইকাদেরকেও এই ব্যাপারে সুপারিশ করার অনুমতি দেওয়া হবে।

ড. আশ্‌ শাইখ সালিহ্‌ আল ফাওযান কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত ইমাম আল বারবাহারী রচিত “শারহুছ্ ছুন্নাহ (ছুন্নাতের ব্যাখ্যা)” (৪৯তম পর্ব)

এটি মুহ্তারাম আশ্শাইখ সালিহ্ আলফাওযান (حفظه الله) কর্তৃক আহলে ছুন্নাত ওয়াল জামা‘আতের প্রখ্যাত ইমাম- ইমাম আল বারবাহারী (رحمه الله) এর অনবদ্য গ্রন্থ “শারহুছ্ ছুন্নাহ” এর অতি চমৎকার ও মূল্যবান ব্যাখ্যাগ্রন্থের অডিও ভাষান্তর। বাংলা ভাষায় গ্রন্থটি ধারাবাহিকভাবে অডিও ভাষান্তর করছেন উছতায আবূ ছা`আদা হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله। অদ্যকার আলোচনায় উছতায- আম্বিয়া عليهم السلام ও মালাইকাদের প্রতি বিশ্বাস স্থাপনের বিষয়ে মূল্যবান আলোচনা করেছেন। এছাড়াও তাতে নিম্নোক্ত বিষয়াদী সম্পর্কে অত্যন্ত চমৎকার আলোচনা করা হয়েছে:-
১) আম্বিয়া ও মালাইকাগণের প্রতি বিশ্বাস স্থাপনের ব্যাখ্যায় শাইখ ‘উছাইমীন رحمه الله বলেন- ঈমানের রুক্‌নসমূহের একটি হচ্ছে- আল্লাহ্‌র (سبحانه وتعالى) নাবীগণ ও মালাইকাগণের প্রতি বিশ্বাস। এই ব্যাপারে হাদীছে জিবরীলে বর্ণিত রয়েছে, যেখানে জিবরীল عليه السلام রাছূলুল্লাহ-কে (صلى الله عليه وسلم) জিজ্ঞাসা করেন যে, আমাকে ঈমান সম্পর্কে বলুন? উত্তরে রাছূলুল্লাহ صلى الله عليه وسلم বলেন- ঈমান হচ্ছে যে, আপনি আল্লাহ্‌র (سبحانه وتعالى) প্রতি, তাঁর মালাইকাগণের প্রতি, তাঁর নাযীলকৃত কিতাবসমূহের প্রতি, তাঁর রাছূলগণের প্রতি, আখিরাতের প্রতি এবং তাক্বদীরের ভালো ও মন্দের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করবেন

ক্বোরআনের তাফছীর (৬ষ্ঠ পর্ব)

এটি উছতায আবূ ছা‘আদা হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله প্রদত্ত একটি ধারাবাহিক অডিও বক্তব্য। উক্ত ধারাবাহিক বক্তব্যে উছতায পবিত্র ক্বোরআনের ছূরা সমূহের তাফছীর প্রদান করবেন, إن شاء الله। বক্তব্যের এই পর্বে উছতায তাফছীরের নিয়ম-নীতি ও ‘উলূমুল ক্বোরআন সম্পর্কে আলোচনা করেছেন।
নিম্নোক্ত বইসমূহ উৎস হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে-

ক) আল ‘আল্লামা ‘আব্দুল্লাহ আছ্‌ ছা‘দী رحمه الله রচিত এবং শাইখ সালিহ্‌ আল ‘উছাইমীন رحمه الله কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত আত-তা‘লীক্ব ‘আলাল ক্বাওা‘য়ীদ আল-হিছান।
খ) আল ‘আল্লামা মুহাম্মাদ ‘আলী আস্‌ সাবূনী رحمه الله রচিত আত্‌ তিবয়ান ফী ‘ঊলূমিল ক্বোরআন।
গ) আল-‘আল্লামা ছুয়ূতী رحمه الله রচিত আল-ইতক্বান।
এছাড়াও ছালাফদের রচিত আরো কিছু বই থেকে সারাংশ উপস্থাপন করা হবে, إن شاء الله।

১) সাহাবায়ে কিরামের (رضي الله عنهم) মধ্যে মুফাছ্‌ছিরে ক্বোরআন হিসেবে সবচেয়ে বেশি প্রসিদ্ধ ছিলেন ‘আব্দুল্লাহ ইবনু ‘আব্বাছ رضي الله عنه । তিনি

ক্বোরআনের তাফছীর (৫ম পর্ব)

এটি উছতায আবূ ছা‘আদা হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله প্রদত্ত একটি ধারাবাহিক অডিও বক্তব্য। উক্ত ধারাবাহিক বক্তব্যে উছতায পবিত্র ক্বোরআনের ছূরা সমূহের তাফছীর প্রদান করবেন, إن شاء الله। বক্তব্যের এই পর্বে উছতায তাফছীরের নিয়ম-নীতি ও ‘উলূমুল ক্বোরআন সম্পর্কে আলোচনা করেছেন।
নিম্নোক্ত বইসমূহ উৎস হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে-

ক) আল ‘আল্লামা ‘আব্দুল্লাহ আছ্‌ ছা‘দী رحمه الله রচিত এবং শাইখ সালিহ্‌ আল ‘উছাইমীন رحمه الله কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত আত-তা‘লীক্ব ‘আলাল ক্বাওা‘য়ীদ আল-হিছান।
খ) আল ‘আল্লামা মুহাম্মাদ ‘আলী আস্‌ সাবূনী رحمه الله রচিত আত্‌ তিবয়ান ফী ‘ঊলূমিল ক্বোরআন।
গ) আল-‘আল্লামা ছুয়ূতী رحمه الله রচিত আল-ইতক্বান।
এছাড়াও ছালাফদের রচিত আরো কিছু বই থেকে সারাংশ উপস্থাপন করা হবে, ইন-শা-আল্লাহ।

১) ক্বোরআনে কারীমে তাফছীর ও তা’ওয়ীল শব্দের উল্লেখ আছে। তাফছীর ও তা’ওয়ীল কাকে বলে এবং এই দু’টোর মধ্যে কি সম্পর্ক রয়েছে, এই

ক্বোরআনের তাফছীর (৪য় পর্ব)

এটি উছতায আবূ ছা‘আদা হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله প্রদত্ত একটি ধারাবাহিক অডিও বক্তব্য। উক্ত ধারাবাহিক বক্তব্যে উছতায পবিত্র ক্বোরআনের ছূরা সমূহের তাফছীর প্রদান করবেন, ইন-শা-আল্লাহ। বক্তব্যের এই পর্বে উছতায তাফছীরের নিয়ম-নীতি ও ‘উলূমুল ক্বোরআন সম্পর্কে আলোচনা করেছেন।
নিম্নোক্ত বইসমূহ উৎস হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে-

ক) আল ‘আল্লামা ‘আব্দুল্লাহ আছ্‌ ছা‘দী رحمه الله রচিত এবং শাইখ সালিহ্‌ আল ‘উছাইমীন رحمه الله কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত আত-তা‘লীক্ব ‘আলাল ক্বাওা‘য়ীদ আল-হিছান।
খ) আল ‘আল্লামা মুহাম্মাদ ‘আলী আস্‌ সাবূনী رحمه الله রচিত আত্‌ তিবয়ান ফী ‘ঊলূমিল ক্বোরআন।
গ) আল-‘আল্লামা ছুয়ূতী رحمه الله রচিত আল-ইতক্বান।
এছাড়াও ছালাফদের রচিত আরো কিছু বই থেকে সারাংশ উপস্থাপন করা হবে, ইন-শা-আল্লাহ।

১) কখন থেকে ক্বোরআনে কারীম নাযিল হওয়া শুরু হয়েছে?

ক্বোরআনের তাফছীর (৩য় পর্ব)

এটি উছতায আবূ ছা‘আদা হাম্মাদ বিল্লাহ حفظه الله প্রদত্ত একটি ধারাবাহিক অডিও বক্তব্য। উক্ত ধারাবাহিক বক্তব্যে উছ্‌তায ক্বোরআনে কারীমে ছূরা সমূহের তাফছীর প্রদান করবেন, إِن شَاء اَللّٰه। লেকচারের এই পর্বে উছ্‌তায ক্বোরআনের পরিচয় এবং নাযিল সংক্রান্ত বিষয় সম্পর্কে আলোচনা করেছেন। নিম্নোক্ত বইসমূহ উৎস হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে-

ক) আল ‘আল্লামা ‘আব্দুল্লাহ আছ্‌ ছা‘দী رحمه الله রচিত এবং শাইখ সালিহ্‌ আল ‘উছাইমীন رحمه الله কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত আত-তা‘লীক্ব ‘আলাল ক্বাওা‘য়ীদ আল-হিছান।
খ) আল ‘আল্লামা মুহাম্মাদ ‘আলী আস্‌ সাবূনী رحمه الله রচিত আত্‌ তিবয়ান ফী ‘ঊলূমিল ক্বোরআন।
গ) আল-‘আল্লামা ছুয়ূতী رحمه الله রচিত আল-ইতক্বান।
এছাড়াও ছালাফদের রচিত আরো কিছু বই থেকে সারাংশ উপস্থাপন করা হবে, إِن شَاء اَللّٰه।

১) ক্বোরআনুল কারীমের আরো কিছু নাম ক্বোরআনেই বর্ণিত হয়েছে। সেগুলো হলো-

ড. আশ্‌ শাইখ সালিহ্‌ আল ফাওযান কর্তৃক ব্যাখ্যাকৃত ইমাম আল বারবাহারী রচিত “শারহুছ্ ছুন্নাহ (ছুন্নাতের ব্যাখ্যা)” (৪৮তম পর্ব)

এটি মুহ্‌তারাম আশ্‌শাইখ সালিহ্‌ আলফাওযান (حفظه الله) কর্তৃক আহলে ছুন্নাত ওয়াল জামা‘আতের প্রখ্যাত ইমাম- ইমাম আল বারবাহারী (رحمه الله) এর অনবদ্য গ্রন্থ “শারহুছ্‌ ছুন্নাহ” এর অতি চমৎকার ও মূল্যবান ব্যাখ্যাগ্রন্থের অডিও ভাষান্তর। বাংলা ভাষায় গ্রন্থটি ধারাবাহিকভাবে অডিও ভাষান্তর করছেন উছতায আবূ ছা‘আদা হাম্মাদ বিল্লাহ (حفظه الله)। অদ্যকার আলোচনায় উছতায- হাশ্‌রের মাঠের শাফা‘আত বা সুপারিশ সংক্রান্ত বিষয়ে মূল্যবান আলোচনা করেছেন। এছাড়াও তাতে নিম্নোক্ত বিষয়াদী সম্পর্কে অত্যন্ত চমৎকার আলোচনা করা হয়েছে:-
১) শাফা‘আতের আভিধানিক অর্থ হচ্ছে- কোনো বিজোড় বিষয়কে জোড় করা। এখানে, শাফা‘আতকারীর সাথে শাফা‘আতকৃত ব্যক্তির একটি জোড় বা মিল হয়ে যায়। এজন্যই একে শাফা‘আত বলা হয়। শারি‘য়াতের পরিভাষায়, অন্যের উপকার করার জন্য বা অপরকে অনিষ্ট থেকে রক্ষা করার জন্য সুপারিশ করা।
২) শাইখ ‘উছাইমীন رحمه الله বলেন, শাফা‘আত মূলতঃ দুই প্রকারঃ-

ক) শাফা‘আতে সাহিহাহ বা সঠিক শাফা‘আত। যে শাফা‘আতের মধ্যে ৩টি শর্ত পাওয়া যাবে, সেটাই সঠিক বলে গণ্য হবে। শর্ত ৩টি হলো-

Subscribe to our mailing list

* indicates required
Close